পাগলাপীরে জমছে পাট শাকের বেচা বিক্রী


হাবিবুর রহমান সেলিম, পাগলাপীর ঃ রংপুরের পাগলাপীরের বিভিন্ন হাট বাজারে জমছে সোনালী আঁশ বলে পরিচিত পাট শাকের বেচা বিক্রী। পাট শাকের তরকারী খেতে সু-স্বাদু হওয়ায় ক্রেতা সাধারন ছুটছেন হাট বাজারের পাট শাকের দোকানগুলোতে। দাম ক্রেতা সাধারনের  হাতের নাগালের মধ্যে পড়ায় ধনী গরিব থেকে পাগলাপীর অঞ্চলের সকল শ্রেনির ক্রেতা সাধারন হাট বাজারে শাকের দোকানগুলোতে ভিড় জমাচ্ছেন। জানাগেছে সোনালী আঁশ পাট এক সময় পাগলাপীর অঞ্চলের ক্ষুদ্র বর্গা সহ প্রান্তিক কৃষকরা তাদের ফসলী জমিতে চাষাবাদ করে অধিক মুল্যে বিক্রি করে অর্থ উপার্জন করতো। এর ফলে পাট কে সোনালী আশ অর্থকারী ফসল হিসিবে এ অঞ্চলের কৃষকের মাঝে পরিচিতি লাভ করে। কিন্তু কাল ক্রমে হাট বাজারে পাটের ন্যয্য দাম না থাকায় সোনালী আঁশ পাট দিয়ে সুতা, রশি, হরেক রকমের শিখা, কৃষি নানা উপকরন এবং জ্বালানী হিসেবে ব্যবহারের পাশাপাশি সাধারন মানুষজন পাট শাক কে শাক-সবজী হিসেবে চাষাবাদ করে থাকে। পাট শাকের তরকারী খেতে সু-স্বাদু হওয়ায় পাগলাপীর অঞ্চলের সর্বশ্রেনির মানুষজন নানা সামাজিক অনুষ্ঠানে অতিথি আপ্যায়নে কালে লাগাত। স্বরজমিনে পাগলাপীরের কাচাবাজার নামাহাট ঘুরে দেখা গেছে ব্যবসায়ীরা দেদারচ্ছে বিক্রি করছেন পাট শাক। মশিয়ার, গোলজার, শহিদুল সহ কয়েকজন শাক সবজি ব্যবসায়ী জানান দু মুঠা শাকের আটি ২০ টাকা আবার অনেক সময় ৩ থেকে ৪ মুঠা ২০ টাকা দরে বিক্রী করা হচ্ছে। তবে এ সময় গ্রীষ্ম কালীন, তাই পাট শাকের তরকারী খেতে মজাদার হওয়ায় ক্রেতাদের কাছে পাট শাকের কদর বেড়েছে ব্যাপক। 

পুরোনো সংবাদ

রংপুর 2823725132411470996

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

কৃষিকথা

ফেসবুক লাইকপেজ

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item