ক্ষুধার্ত দুই ভিক্ষুক বোনের বাড়িতে বাজার পৌঁছে দিল পুলিশ


পীরগাছা (রংপুর) প্রতিনিধি
অমিছা খাতুন ও করফুল বেওয়া দুজনেই এলাকায় পাগলী হিসেবে পরিচিত। ভিক্ষা করেই তাদের জীবন চলে। কিন্তু করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে চলমান পরিস্থিতিতে তাদের ভিক্ষাবৃত্তি বন্ধ হয়ে যায়। গত দুদিন থেকে ঘরে খাবার ছিল না। অনাহারেই দিন কাটছিল তাদের। বিষয়টি পীরগাছা থানার ওসি রেজাউল করিমকে জানানোর পর রবিবার বিকেলে বাজার নিয়ে ছুটে যান এএসআই মাসুদার রহমান।
অমিছা খাতুন ও করফুল বেওয়ার বাড়ি রংপুরের পীরগাছা উপজেলার তাম্বুলপুর ইউনিয়নের রহমতচর গ্রামে।
সরেজমিনে জানা যায়, উপজেলা সদর থেকে ১৮ কিলোমিটার দূরে তাম্বুলপুর ইউনিয়নের রহমতচর গ্রাম। এর পাশ দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে তিস্তা নদী। ১৯৮৮ সালের বন্যায় পুরো গ্রাম নদী ভাঙনের কবলে পড়ে বিলীন হয়ে যায়। বছর কয়েক পরে আবারো চর জেগে গড়ে ওঠে বসতি। কিন্তু উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি গ্রামটিতে। ওই গ্রামে একটি টিনের বেড়া-টিনের চালের ঘরে বসবাস করেন পঞ্চাশোর্ধ্ব করফুল বেওয়া ও অমিছা খাতুন। তারা দুজনে আপন বোন। করফুল বেওয়ার বিয়ে হলেও স্বামী মারা যায় প্রায় ২০ বছর আগে। তখন থেকেই বাবার বাড়িতে আছেন। বাবা-মার অভাবের সংসার তাই ছোট বোন অমিছা খাতুনকে বিয়েই দিতে পারেননি। বাবা-মা মারা যাওয়ার পর অসহায় হয়ে পড়েন তারা। জীবন বাঁচাতে বেছে নেন ভিক্ষিাবৃত্তি। কিন্তু করোনাভাইরাসের কারণে ভিক্ষাও বন্ধ হয়ে যায়। ঘরে যেটুকু চাল ছিল তাই খেয়েছেন। শুক্রবার রাতে সে চাল শেষ হয়ে যাওয়ায় রবিবার দুপুর পর্যন্ত ছিলেন উপোস।
তাদের ঘরে খাবার না থাকার কথা জানতে পেয়ে পীরগাছা থানার ওসি রেজাউল করিম বাজারসহ এএসআই মাসুদুর রহমানকে তাদের বাড়িতে পাঠান। এ সময় আরো একটি পরিবারকে বাজার দেওয়া হয়।
পীরগাছা থানার এএসআই মাসুদর রহমান বলেন, ‘ভিক্ষুক দুই বোন সত্যি অসহায়। তাদের কেউ নেই। ওসি স্যারের মাধ্যমে জানার পর অসহায় ওই দুই বোনের বাড়িতে বাজার পৌঁছে দিয়েছি।’
পীরগাছা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল করিম বলেন, ‘চরের ভিক্ষুক দুই বোন অনাহারে থাকার বিষয়টি জানতে পেয়ে এএসআই মাসুদুর রহমানকে বাজার নিয়ে পাঠানো হয়। কেউ অভুক্ত থাকবে না। ফোন পেলেই তাদের বাড়িতে খাবার পৌঁছে দেওয়া হবে।’##

পুরোনো সংবাদ

রংপুর 1714086976249003588

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

কৃষিকথা

ফেসবুক লাইকপেজ

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item