পাগলাপীরে সোয়া ৩’শ পরিবারের মাঝে ৪ বিশিষ্ট জনের ত্রান বিতরন


হাবিবুর রহমান সেলিম, পাগলাপীরঃ করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় অব্যাহত লকডাউনে রংপুর সদর উপজেলার পাগলাপীর হরিদেবপুর ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ডের গোকুলপুর মুলাপাড়া গ্রামে সোয়া ৩’শ পরিবারের মাঝে ৪ বিশিষ্ট জনের উদ্যোগে ত্রান সামগ্রী বিতরন করা হয়েছে। শুক্রবার ২৪ শে এপ্রিল বিকাল ৪টায় পাগলাপীর ব্র্র্যাক অফিস সংলগ্ন মাঠে সোয়া ৩’শ অসহায় নারী-পুরুষ পরিবারের মাঝে ১০ কেজি চাল,আড়াই কেজি আলু, ২ কেজি চিনি, ১ কেজি লবন, ১ কেজি সয়াবিন তেল,  ১ কেজি ছোলা বুট, গোসল করা ও কাপড় কাঁচা সাবান সহ উক্ত ত্রান সামগ্রী বিতরন করা হয়। অত্র ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ ইকবাল হোসেন ও ত্রান বিতরনের প্রধান উদ্যোক্তা দানবীর বিশিষ্ট সমাজ সেবক শিক্ষানুরাগী মোঃ রফিকুল ইসলাম মাষ্টার উক্ত ত্রান সামগ্রী বিতরন করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সদর উপজেলার চেয়ারম্যান নাছিমা জামান ববি, ত্রান বিতরনে বাকি ৩ উদ্যোক্তা চাল আরতদার হাছেন আলীর ওরফে হাছেন দাড়িয়া, মেঘনা গ্রæপের এজেন্ট মোঃ তারিফুল ইসলাম সবুজ ও গো-খাদ্যের আরতদার আইনুল ইসলাম জীবন। এছাড়াও অন্যান্যদের  মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট দলিল লেখক মোঃ তারাজুল ইসলাম, সমাজ সেবক জসিম উদ্দিন বাবুল, গন মাধ্যম কর্মী সহ স্থানীয় বিশিষ্টজনরা। ত্রান বিতরনের পূর্বে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে অত্র ইউনিয়নের সুযোগ্য চেয়ারম্যান মোঃ ইকবাল হোসেন বলেন করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় দেশের এই দূর্যোগ মুহুর্তে রফিকুল ইসলাম মাষ্টার ভাই সহ চার দানবীর ব্যক্তি অসহায় মানুষের পাশে দাড়িয়ে  সাহায্য সহযোগীতা করিয়ে যে মহাত্বের পরিচয় দিয়েছেন সেটি নিঃসন্দেহে পাগলাপীর হরিদেবপুর ইউনিয়ন তথা সদর উপজেলা সহ জেলায় বিরল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। এজন্য আমার পরিষদের পক্ষ থেকে রফিকুল ইসলাম মাষ্টার, হাছেন আলী, তারিকুল ইসলাম সবুজ ও আইনুল ইসলাম জীবন ৪ দানবীর ব্যক্তিকে ধন্যবাদ জানাই এবং তাদের এই মহতি উদ্যোগ ইউনিয়নের প্রতিটি জনগনের দেশের দূঃসময়ে অসহায়ের পাশে দাড়ানোর অনুপ্রেরনা জোগাবে বলে চেয়ারম্যান ইকবাল হোসেন বিশ্বাস করেন। রফিকুল ইসলাম মাষ্টার কে উদ্যেশ্য করে চেয়ারম্যান ইকবাল হোসেন আরও বলেন আমি বিভিন্ন মাধ্যমে শুনেছি পরিত্র ঈদুল ফিতর, ঈদুল আযহা, গরীব দুখী সহ যে কোন পরিবারের বিয়ে-সাদী , কোন ব্যক্তি বিশেষ মারা গেলে, কিংবা অসুস্থ হলে আপনি দান-খয়রাত, সাহায্য-সহযোগীতা করে থাকেন। তাই আশা করি করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় দেশের এই দূর্যোগ মুহুর্তে আপনার সাহায্য সহযোগীতার হাত আরও একটু বাড়িয়ে দিলে আমার ইউনিয়নের অসহায় জনগনের কল্যান হবে। উল্লেখ্য উক্ত ত্রান বিতরনের প্রতিটি প্যাকেটে রয়েছে প্রায় ১ হাজার টাকার মূল্যের চাল,ডাল সহ বিভিন খাদ্য সামগ্রী। সোয়া ৩’শ প্যাকেটের সিংহ ভাগ অর্থ দিয়েছেন দানবীর মোঃ রফিকুল ইসলাম মাষ্টার। বাকী ৩ দানবীরের মধ্যে চাল আরতদার  হাছেন আলীর ৫০ হাজার টাকা, গো-খাদ্যের আরতদার আইনুল ইসলাম জীবনের ১০ হাজার টাকা ও মেঘনা গ্রæপের এজেন্ট তারিকুল ইসলাম সবুজের সোয়া ৩’শ কেজি প্যাকেট লবন। 

পুরোনো সংবাদ

রংপুর 6487580237016871694

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

কৃষিকথা

ফেসবুক লাইকপেজ

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item