এক ব্যক্তির করোনা সংক্রমণের আশঙ্কায় সৈয়দপুরে ১০ পরিবার হোম কোয়ারেন্টিনে


তোফাজ্জল হোসেন লুতু,সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি:
 নীলফামারীর সৈয়দপুর শহরের বাঁশবাড়ী টালি মসজিদ রোড এলাকার এক ব্যক্তি প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসে সংক্রমমিত বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। তাঁর নাম মো. ইমরান (৩৫)। আজ মঙ্গলবার বিকেলে তাকে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় রংপুর মেডিক্যাল কলেহজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এদিকে, ওই ঘটনায় এলাকার ১০ পরিবারের সকল সদস্যকে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়।  সেই সঙ্গে সাতটি দোকান মালিককেও কোয়ারেন্টিনে পাঠনো হয়েছে। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সৈয়দপুর উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভুমি) পরিমল কুমার সরকার এলাকায় গিয়ে সার্বিক দিক বিবেচনায় নিয়ে জনস্বার্থে ওই নির্দেশনা দেন। এ নিয়ে গোটা সৈয়দপুর শহরের মানুষের মধ্যে চরম আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে।
 খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, শহরের উল্লিখিত এলাকার মো. নাসিম খানের ছেলে ইমরান (৩৫)। তিনি নারায়নগঞ্জের একটি চীনা কম্পানি কাজ করতেন। গত ৬/৭ দিন আগে ইমরান তাঁর সৈয়দপুরের বাড়িতে আসেন। গেল ৩/৪ দিন আগে থেকে তিনি অসুস্থতা বোধ করতে থাকেন। এ অবস্থায় তিনি  সৈয়দপুর ১০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে চিকিৎসাও নেন। মঙ্গলবার তিনি গুরুতর অসুস্থ হলে পড়লে বিকেলে তাকে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।  মঙ্গলবার খবর পেয়ে সৈয়দপুর উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) পরিমল কুমার সরকার এলাকায় গিয়ে তার অসুস্থতার বিষয়ে সার্বিক খোঁজ খবর নেন। তিনি করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত আশঙ্কায় সন্ধ্যায় বাঁশবাড়ি টালি মসজিদ রোড এলাকার ১০টি পরিবারের সকল সদস্যকেই এবং সাতটি দোকান মালিককে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার নির্দেশ জারি করা হয়।  সৈয়দপুর উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) পরিমল কুমার সরকার ওই নির্দেশনা জারি করেন। এ সময় সৈয়দপুর পৌরসভার মেয়র (ভারপ্রাপ্ত) মো. জিয়াউল হক জিয়া, ১৪ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. আবিদ হোসেন লাড্ডান, সৈয়দপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) মো. আতাউর রহমানসহ পুলিশ সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।  

পুরোনো সংবাদ

হাইলাইটস 6100264775185675136

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

কৃষিকথা

ফেসবুক লাইকপেজ

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item