সৈয়দপুরে আগুনে পাঁচটি পরিবারের সর্বস্ব পুড়ে ছাই

তোফাজ্জল হোসেন লুতু,সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি:নীলফামারীর সৈয়দপুর শহরে আগুনে পাঁচটি পরিবারের সর্বস্ব পুঁড়ে ছাঁই গেছে। আজ বুধবার দুপুরে পৌরসভার ২ নম্বর ওয়ার্ডের জেলেপাড়া (সাল্টিয়াপাড়া) ওই আগুনের ঘটনাটি ঘটে। আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোর সদস্যরা পরণের কাপড় ছাড়া কোন কিছুই রক্ষা করতে পারেননি। এ আগুনে  পরিবারগুলোর নগদ অর্থসহ প্রায় ১০ লাখ টাকা ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারগুলো প্রাথমিকভাবে ধারণা করছেন।

জানা গেছে, সৈয়দপুর পৌরসভার ২ নম্বর ওয়ার্ডের উল্লিখিত এলাকার খুচরা মাছ ব্যবসায়ী দীনেশ চন্দ্র দাসের বাড়ি থেকে প্রথমে আগুনের সূত্রপাত হয়। আর মুর্হুতের মধ্যে আগুনের লেলিহান শিখা আশপাশের এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে। এতে দীনেশ চন্দ্র দাসের চারটি ঘর ছাড়াও পাশের স্বামী পরিত্যক্তা ছালেয়া খাতুনের দুইটি, ও তাঁর ছেলে আব্দুল সালামের একটি, নদীয়ার দুইটি ও পরিমল কুমার দাসের দুইটিসহ মোট ১১ টি টিনের বসত ঘর, রান্না ঘর ও গোয়াল ঘর, আসবাবপত্র, নগদ অর্থ, স্বর্ণালংকার, মূল্যবান কাপড়-চোপড়, চাল, ধানসহ সংসারের বিভিন্ন মালামাল আগুনে পুড়ে যায়।



আগুনের খবর পেয়ে সৈয়দপুর ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্স স্টেশনের সিনিয়র স্টেশন অফিসার মো. মাহামুুদুল হাসানের নেতৃত্বে দমকলবাহিনীর কর্মীরা দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে প্রায় এক ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়। কিন্তু তার আগেই উল্লিখিত পাঁচটি পরিবারের সর্বস্ব পুড়ে ছাঁই হয়ে যায়। ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারগুলোর সদস্যরা শুধুমাত্র নিজেদের পরণের কাপড় ছাড়া কোন কিছুই আগুনে কবল থেকে রক্ষা করতে পারেননি। বর্তমানে আগুনে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারগুলো খোলা আকাশের নিচে অবস্থান করছেন।

সৈয়দপুর ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্স স্টেশনের সিনিয়র স্টেশন অফিসার মো. মাহামুুদুল  হাসান জানান, রান্নার ঘরে চুলার আগুন থেকে এ আগুনের সূত্রপাত হয়। আগুনে পাঁচটি পরিবারের ১১টি টিনের বসত, রান্না ও গোয়ালঘরসহ তিন লক্ষাধিক টাকার মালামাল পুঁড়ে গেছে। আর যথাসময়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনায় প্রায় পাঁচ লক্ষাধিক টাকার মালামাল উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে।

পুরোনো সংবাদ

নীলফামারী 4950933719600453845

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

কৃষিকথা

ফেসবুক লাইকপেজ

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item