ডোমারে এস,এস,সি পরীক্ষার্থীর আত্মহত্যার ঘটনায় সহপাঠীরা সড়কে ,তদন্ত টীম গঠন

আবু ফাত্তাহ্ কামাল (পাখি),স্টাফ রিপোর্টার ঃ ডোমারে  কর্তৃপক্ষের অবহেলায় এস,এস,সি পরীক্ষার্থীর আত্মহত্যার ঘটনায় ডোমার  - চিলাহাটি সড়ক অবরোধ , বিক্ষোভ  করেছে মাইগঞ্জ উচ্চবিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। আজ সোমবার দুপুর  তিনটায় উপজেলার মাইগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয় সংলগ্ন এলাকায়  প্রধান শিক্ষকের বরখাস্তের দাবীতে এ কর্মসূচী  পালন করে ।জেলা শিক্ষা অফিসার ঘটনার ন্যয় বিচারের আশ্বাস দিলে শিক্ষার্থীরা এক ঘন্টার অবরোধ তুলে নেয় ।এ নিয়ে গতকাল রবিবার“ কর্তৃপক্ষের অবহেলায় ডোমারে এস,এস,সি পরীক্ষার্থীর আত্মহত্যা  ” শিরোনামে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ হয় ।

দেখা গেছে, উপজেলার  মাহিগঞ্জ উচ্চবিদ্যালয়ের চলতি এস,এস,সির পরীক্ষার্থী রায়হান ইসলাম (১৬), রফিক ইসলাম(১৬), বাধঁন রায় (১৬) বিক্ষোভকালে জানান ,আমরা প্রধানশিক্ষকের বরখাস্ত, বিদ্যালয়ের সকল দূনীর্তি বন্ধ, ম্যানেজিং কমিটি গঠন, তৃষ্ণা রায়ের সৎকারের সকল ব্যয় বহন করতে হবে । তিনদিনের মধ্যে দাবী পুরণ না হলে আমরা কঠোর আন্দোলন গড়ে তুলব ।
এ ব্যাপারে ঘটঁনাস্থলে আসা জেলা শিক্ষা অফিসার মোঃ শফিকুল ইসলাম জানান, এখানে একটি মর্মান্তিক ঘটনা ঘটেছে ।আমি মুলত সান্তনা জানাতে এসেছিলাম ।বাচ্চারা তাদের সহপাঠীকে সহানুভুতি জানাচ্ছে । ইতিমধ্যে দুই সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত টীম গঠন করেছি ।সদস্যরা হলেন ডোমার উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার শাকেরিনা বেগম, আমার অফিসের সহকারী পরিদর্শক মশিউর রহমান ।এই টীমকে তিন দিনের মধ্যে তদন্ত রির্পোট দিতে বলা আছে ।প্রথম থেকে ,কোথা থেকে কিভাবে ঘটনা ঘঁটল,তিনদিনের মধ্যে সমস্ত রির্পোট তারা দিলে, আমি উধ্বর্ধতন কর্তৃপক্ষের নিকট পাঠিয়ে সুষ্ট ব্যবস্থা নেওয়া চেষ্টা করব ।আমি জানি ,কিছুদিন থেকে এখানে কেস কাচারী চলছে,সেটার সাথে রেজিষ্ট্রেশনের কোন সম্পর্ক নাই ।বাচ্চাদের লাইফ নিয়ে খেলার কোন সুযোগ নেই ।
এ ব্যাপারে প্রধানশিক্ষক (ভারপ্রাপ্ত) মোঃ সিরাজুল ইসলাম জানান, ঐখানে যারা বিক্ষোভ করেছে ,তারা বেশীর ভাগ বহিরাগত  ।কিছু শিক্ষার্থী , ও অভিভাবক ছিল যারা বিপক্ষের ।অত্র বিদ্যালয়ে দীর্ঘদিন থেকে ভারপ্রাপ্ত প্রধানশিক্ষক নিয়ে দ্বন্দ্ব চলছে । এসব নিয়ে হাইকোর্টে ,সুপ্রীম কোর্টে মামলা রয়েছে ।বর্তমানেও কমিটি সংক্রান্ত একটি মামলা হাইকোর্টে রয়েছে ।বিদ্যালয়ে কোন কমিটি নাই ।১৩ জন শিক্ষকের স্থলে মাত্র ৬ জন  আছে ।নিয়োগ নিয়েও মামলা ছিল ।যার কারণে নিয়োগ দেওয়া যায়নি ।বর্তমানে অফিস সহকারীও নাই ।এতে বিদ্যালয়ে বিভিন্ন সমস্যা তৈরী হচ্ছে।
উল্লেখ্য, গত রবিবার (২রা ফেব্রুয়ারী)  প্রবেশপত্রে বানিজ্য বিভাগের বিষয়গুলি না এসে মানবিক বিভাগের বিষয়গুলি আসায় আত্মহত্যা করে  উপজেলার মাহিগঞ্জ উচ্চবিদ্যালয়ের এস,এস,সি পরীক্ষার্থী তৃষ্ণা রায়ে । তৃষ্ণা রায় উপজেলার বোড়াগাড়ী ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ডের দোদিপাড়ার দিনমজুর দুলাল রায়ের মেয়ে । এ ব্যাপারে ডোমার থানায় একটি ইউডি মামলা দায়ের হয় গত রবিবার রাতে।

পুরোনো সংবাদ

নীলফামারী 1888988814834021858

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

কৃষিকথা

ফেসবুক লাইকপেজ

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item