ফুুলবাড়ীতে মাদক ব্যবসায়ী ধরতে গিয়ে দুই পুলিশ সদস্য ক্লোজড :ব্যাবসায়ীর বিরুদ্ধে মামলা

মেহেদী হাসান উজ্জল,ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধি:
দিনাজপুরের পার্বতীপুরের বড়পুকুরিয়া পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই জুয়েল হাসান ও কনস্টেবল শরিফুল কর্তৃপক্ষকে না জানিয়ে ফুলবাড়ী শহরের মোটরসাইকেল গ্যারেজ মালিক মাসুদ রানাকে মাদক ব্যবসায়ী হিসেবে আটক করতে এসে গণরোষের পড়েন। ঘটনার পরপরই ফুলবাড়ী থানা পুলিশ ঘটনস্থল থেকে ওই দুই পুলিশ সদস্যকে থানায় নিয়ে আসেন।ঘটনাটি ঘটেছে,গত সোমবার (১৬ ডিসেম্বর) রাত সাড়ে ৮টায় ফুলবাড়ী পৌরসভা কার্যালয় সংলগ্ন এম. আর অটোস নামের মোটরসাইকেল গ্যারেজে।

তবে শৃঙ্খলা ভঙ্গের অপরাধে গত (১৭ডিসেম্বর) মঙ্গলবার ওই দুই পুলিশ সদস্যকে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে দিনাজপুর পুলিশ লাইনে প্রত্যাহার করা হয়েছে। একই সাথে এম. আর অটোস নামের মোটরসাইকেল গ্যারেজ মালিক মাসুদ রানা মাদক ব্যবসার সাথে সংশ্লিষ্ট থাকায় তার বিরুদ্ধে থানায় মামলা হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা জানিয়েছেন।

এদিকে মোটরসাইকেল গ্যারেজ মালিক মাসুদ রানা ও তার পরিবারের নিরাপত্তা নিশ্চিত করাসহ বড়পুকুরিয়া পুলিশ ফাঁড়ির ওই দুই পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে আইনানুগ ও বিভাগীয় ব্যবস্থাগ্রহণের দাবি জানিয়ে গত ১৭ ডিসেম্বর মঙ্গলবার সকালে ফুলবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে ফুলবাড়ী মটরসাইকেল মেকার্স ইউনিয়নের সভাপতি মোর্শেদ আলী ও সাধারণ সম্পাদক মানিক প্রসাদ বাদী হয়ে একটি লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়েছে।

অভিযোগকারী ফুলবাড়ী মটরসাইকেল মেকার্স ইউনিয়নের সভাপতি মো. খোরশেদ আলী ও সাধারণ সম্পাদক মানিক প্রসাদ তাদের লিখিত অভিযোগে দাবী করেছেন, গত ১৬ ডিসেম্বর সোমবার রাত সাড়ে ৮টায় উপজেলার চককড়েয়া গ্রামের আলতাফ হোসেনের ছেলে ও পৌরসভা কার্যালয় সংলগ্ন এমআর অটোস গ্যারেজের মালিক মাসুদ রানা(২৫)কে তার গ্যারেজে দুইজন অপরিচিত ব্যক্তি পুলিশ পরিচয় দিয়ে মাদক ব্যবসায়ী হিসেবে গ্রেফতার করার চেষ্টা করেন। এ সময় তারা মাসুদ রানাকে মারপিটসহ পিস্তল ঠেকিয়ে ইয়াবা বড়ি তার পকেটে ঢুকিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করেন। এ সময় গ্যারেজ অপর এক শ্রমিক চিৎকার শুরু করলে স্থানীয়রা এগিয়ে আসেন। এ সময় ওই দুই ব্যক্তির পরিচয় জানার চেষ্টা করেন। এক পর্যায়ে ওই দুই ব্যক্তি নিজেদেরকে বড়পুকুরিয়া পুলিশ ফাঁড়িতে কর্মরত পুলিশ সদস্য পরিচয় দেন। পরে স্থানীয় ফুলবাড়ী থানা পুলিশকে বিষয়টি জানালে পুলিশ সদস্যরা এসে ওই দুই পুলিশ সদস্যকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যান। একই সাথে গ্যারেজ মালিক মাসুদ রানার মোবাইল ফোনটিও পুলিশ থানায় নিয়ে যায়। বিষয়টি ধামাচাপা দিতে মাসুদ রানা ও তার পরিবারকে নানাভাবে হুমকি ও ভয়ভীতি দেওয়া হচ্ছে বলেও অভিযোগে দাবী করা হয়েছে।
অভিযোগকারী ফুলবাড়ী মটরসাইকেল মেকার্স ইউনিয়নের সভাপতি মো. খোরশেদ আলী বলেন,মাসুদকে নিরাপরাদ ভেবে সাংগঠনিকভাবে, মাসুদের পাশে দাড়িয়ে তাকে সহযোগিতা করতে চেয়েছি আমরা,তবে সে যে মাদকের সাথে জড়িত তা আমাদের জানা ছিলোনা ।

পার্বতীপুরের বড়পুকুরিয়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক সুলতান মাহমুদ বলেন, এএসআই জুয়েল হাসান ও কনস্টেবল শরিফুল ইসলাম মাদক ব্যবসায়ীকে ধরতে ফুলবাড়ী যাবেন এমন কোন সংবাদ বা তথ্য তাকে না জানিয়েই নিজ খেয়ালখুশি মতো গিয়েছিলেন।
ঘটনার পর জানতে পারেন ফাঁড়ির দুই পুলিশ সদস্য ফুলবাড়ী থানায় অবস্থান করছেন। উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে তাদেরকে দিনাজপুর পুলিশ লাইনে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. ফখরুল ইসলাম বলেন, মোটরসাইকেল গ্যারেজ মালিক মাসুদ রানা একজন মাদক ব্যবসায়ী। তার বিরুদ্ধে মাদক মামলা দিয়ে তাকে জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে । পার্বতীপুরের বড়পুকুরিয়া পুলিশ ফাঁড়ির পুলিশ সদস্য এএসআই জুয়েল হাসান ও কনস্টেবল শরিফুল ইসলামের ফুলবাড়ী থানা এলাকায় অভিযান প্রসঙ্গে তিনি বলেন, পুলিশ বাংলাদেশের যেকোন এলাকায় মাদক সংক্রান্ত বিষয়ে অভিযান চালাতে পারে। ওই দুই পুলিশ সদস্য ভেবেছিলেন অভিযান সফল হওয়ার পর ফুলবাড়ী থানা পুলিশকে জানাবেন। তবে অভিযানের আগে জানালে ভালো হতো। ফুলবাড়ী থানা পুলিশকে না জানিয়ে অভিযান চালানোর বিষয়টি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ ব্যবস্থা নেবেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আব্দুস সালাম চৌধুরী বলেন, ফুলবাড়ী মটরসাইকেল মেকার্স ইউনিয়নের পক্ষ থেকে একটি অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে ফুলবাড়ী সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপারকে জানানো হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অভিযোগকারীদের সাথে কথা বলবেন। অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেলে তিনিও প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেবেন।
ফুলবাড়ী সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মিয়া মোহাম্মদ আশীষ বিন হাছান বলেন, বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় মোটরসাইকেল গ্যারেজ মালিক ও শ্রমিকদের সাথে কথা হয়েছে। গ্যারেজ মালিক মাসুদ রানা একজন মাদক ব্যবসায়ী তার সত্যতা রয়েছে। এজন্য প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। একই সাথে কর্তৃপক্ষকে না জানিয়ে এক থানা থেকে অন্য থানায় এসে অভিযান পরিচালনার জন্য শৃঙ্খলা ভঙ্গের অপরাধে ওই দুই পুলিশ সদস্যকে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে দিনাজপুর পুলিশ লাইনে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

পুরোনো সংবাদ

নির্বাচিত 6652717824708461095

অনুসরণ করুন

মুজিব বর্ষ

Logo

সর্বশেষ সংবাদ

শিল্প-সাহিত্য

ফেসবুক লাইকপেজ

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

তারিখ অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item