নীলফামারী জেলা আ. লীগ সম্মেলন ৫ ডিসেম্বর॥ সম্পাদক পদে প্রার্থীতা ঘোষণা করেছেন কামরুল

বিশেষ প্রতিনিধি॥ তেরো বছর পর নীলফামারী জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে চলতি বছরের আগামী ৫ ডিসেম্বর। সম্মেলন ঘিরে জেলা জুড়ে সাজ সাজ রব পড়েছে। বর্তমান কমিটিতে সভাপতি ও সাধারন সম্পাদক হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন যথাক্রমে দেওয়ান কামাল আহমেদ ও এ্যাডঃ মমতাজুল হক।
আগামী সম্মেলনে তারাই নেতৃত্বে থাকছেন এমন আভাসও ফুটে উঠেছে নেতাকর্মীদের মধ্যে। এর মাঝে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পদের প্রার্থীতা ঘোষণা করেছেন জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মো. কামরুজ্জামান কামরুল।
আজ বুধবার(২৭ নভেম্বর) দুপুরে জেলা শহরের সৈয়দপুর সড়কে অবস্থিত একটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের কার্যালয়ে স্থানীয় সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় ওই প্রার্থীতা ঘোষণা করেন তিনি।
এসময় কামরুজ্জামান রাজনৈতিক কর্মকান্ড তুলে ধরে বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তরুণ নেতৃত্বের ডাক দিয়েছেন। ওই ডাকে সারা দিয়ে প্রধানমন্ত্রীর দিন বদলের সনদ বাস্তবায়নে কাজ করতে চাই। প্রধানমন্ত্রীর দূর্নীতি ও সন্ত্রাস বিরোধী আন্দোলনে শরীক হতে চাই। দ্বায়িত্ব পেলে আওয়ামী লীগ ও মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষে কাজ করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন তিনি।
কামরুজ্জামান ১৯৯৬ সালে নীলফামারী সরকারী কলেজের ভিপি ছিলেন। ১৯৯২ থেকে ১৯৯৭ সাল পর্যন্ত জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, ১৯৯৮ থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের আহবায়ক এবং ২০১৪ সাল থেকে জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতির দ্বায়িত্ব পালন করে আসছেন তিনি। তার বাবা ইয়াকুব আলী একজন মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন।
তিনি বলেন, আমার বাবা বঙ্গবন্ধুর রাজনীতি করতেন। ১৯৭৫ সালে আমার বাবাকে হত্যা করা হয়েছিল। আমি ওই হত্যা কা-ের বিচার আজও পাইনি।
উল্লেখ্য, ২০০৬ সালের ১৫ জুলাই জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। ত্রি-বার্ষিক ওই কমিটি কেন্দ্রীয় অনুমোদন পায় ২০১২ সালের ১ জানুয়ারী। #

পুরোনো সংবাদ

সমাজ-সংগঠন 8666191348848931397

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

শিল্প-সাহিত্য

ফেসবুক লাইকপেজ

তারিখ অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item