সৈয়দপুরে মাদ্রাসার ১৪টি গাছ কেটে নিল অধ্যক্ষ!

বিশেষ প্রতিনিধি॥ নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলার সোনাখুলী মুন্সীপাড়া কামিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ আ.ব.ম মনছুর আলী বিরুদ্ধে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ১৪টি মূল্যবান গাছ কেটে বিক্রির অভিযোগ উঠেছে। মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির কোন সিদ্ধান্ত ছাড়াই একক ভাবে ওই অধ্যক্ষ গাছ গুলো কেটে বিক্রি করে।
আজ সোমবার(২৮ অক্টোবর) ওই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের দাতা সদস্য আমিনুল ইসলাম চৌধুরী ওই গাছ গুলো অধ্যক্ষ কর্তৃক চুরির অভিযোগ তুলে সৈয়দপুর থানায় লিখিত দিয়েছেন।
সেই সঙ্গে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও স্থানীয় বনবিভাগকে লিখিত উক্ত অভিযোগটি প্রদান করা হয়।
অভিযোগ মতে, গত শুক্রবার(২৫ অক্টোবর) শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সাপ্তাহিক ছুটি ছিল। ওই দিন সকাল হতে ২০ জন শ্রমিক লাগিয়ে ৯টি আম গাছ ও ৫টি মেগগনী সহ ১৪টি গাছ কেটে নিয়ে যায় অধ্যক্ষ। গাছ কাটার সময় দাতা সদস্য সহ অন্যান্য অভিভাবকরা বাধা দিতে গেলে অধ্যক্ষ তাদের প্রাণনাশের হুমকি দেয়। এ সময় গাছকাটার বেশ ছবি তুলে রাখেন এলাকাবাসী। এলাকাবাসীর তিন একর ৬১ শতক জমির উপর মাদ্রাসাটি প্রতিষ্ঠিত। ২০০৪ সালে এটি এমপিওভুক্ত হয়। এই মাদ্রাসার অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে আরো অনেক অনিয়মের অভিযোগ রয়েছে। তার চাকুরীর মেয়াদ বহু আগেও উর্ত্তীর্ণ হলেও নকল সনদ বানিয়ে জন্মতারিখ কম দেখিয়ে তিনি অধ্যক্ষের পদ ধরে রেখেছেন। ২০১০ সালে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের স্বারক নং-ডিআইএ/এ/নীলফামারী/৫৫৬-এম/রাজ তারিখ ২৮/০৪/২০১০ ইং তদন্তে এটি প্রমাণিত হয় । গাছ কাটা সহ ওই অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য এলাকাবাসী সংশ্লিষ্ট দপ্তরের কাছে দাবি করেছে। #

পুরোনো সংবাদ

শিক্ষা-শিক্ষাঙ্গন 2717112075589259739

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

কৃষিকথা

ফেসবুক লাইকপেজ

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item