রাতের ট্রেনগুলোতে কিশোর ছিনতাইকারীরা সক্রিয়॥ পঞ্চগড় এক্সপ্রেসে আটক দুই

বিশেষ প্রতিনিধি॥ ঢাকা বিমানবন্দর রেলস্টেশন এলাকায় সক্রিয় হয়ে উঠেছে কিশোর ছিনতাইকারীর বেশ কিছু টিম। এক নারীর নেতৃত্বে পরিচালনা হয় এই কিশোর ছিনতাইকারীরা। পঞ্চগড় এক্সপ্রেসে ছিনতাই করতে গিয়ে ধরা পড়া দুই কিশোরের স্বীকারোক্তিতে বেড়িয়ে এসেছে চাঞ্চল্যকর তথ্য।
রেলপুলিশ ঘটনাটি তদন্ত করে দেখছে।
আটক দুই কিশোর  হলো- সিলেট জেলার শ্রীমঙ্গলের বিরামপুর এলাকার আজাদুর রহমানের ছেলে
সাব্বির (১৩) ও কিশোরগঞ্জ জেলার লাইখোলা এলাকার মাহাতাবের ছেলে মামুন (১৪)।
জানা যায়, ঢাকা থেকে রাতে উত্তরবঙ্গ ও দক্ষিনাঞ্চল,পশ্চিমাঞ্চল এলাকায় বেশ আন্তঃনগর ট্রেন ছেড়ে আসে। ওই সকল ট্রেনে এই কিশোরদের গ্রুপ ভাগ করে উঠিয়ে দেয়া হয় ছিনতাই করতে। তারা বঙ্গবন্ধু সেতু পার হবার পরপরেই কারো না কারো ব্যাগ হাতিয়ে নিয়ে নির্দিষ্ট সিরাজগঞ্জ রোড এলাকায় জানালা দিয়ে ফেলে দেয়। সেখানে আগেই অপেক্ষা করে ছিনতাইকারী দলের বয়স্কো মানুষ। তারা ছিনতাইয়ের ব্যাগ নিয়ে বাসে করে ঢাকা ফিরে যায়।
রেলওয়ে নিরাপত্তা পুলিশের কাছে আটক দুই কিশোর জানায় ১৫-২০ জনের একটি কিশোর ছিনতাইকারীচক্র ঢাকা বিমানবন্দর রেলস্টেশন  এলাকায় থাকে। তাদের নিয়ন্ত্রন করে রুমি নামের এক নারী। তাদের ছিনতাই করার কলা কৌশল শেখানো হয়েছে। তাদের রাতের ট্রেনে উঠিয়ে দেয়া হয়।  যাত্রীরা যখন ঘুমিয়ে পড়ে তখন  ব্যাগ ছিনতাই করা হয়। সঙ্গে থাকে ব্যাগ হাত বদলে পাচারের আরেকটি দল। মানে যারা ব্যাগটি হাতিয়ে নেয় তারা অপর গ্রুপের কাছে ব্যাগটি দিয়ে দেয়।  বয়সে ছোট ও টোকাই হওয়ায় তাদের কেউ সন্দেহ করেনা। এমন কি রেলপুলিশও অসহায় কিশোরদের ছিন্নমুল ভেবে কিছুই বলেনা। কিন্তু তারা যে কত ভয়ংকর হয়ে উঠছে তা কেউ বুঝতে পারেনা।
রেলপুলিশ জানায়, পঞ্চগড় জেলার বোদা  এলাকার আনসারুল হক ও তার স্ত্রী তানজিনা বেগম ঢাকার উত্তরায় থাকেন।
ভাতিজির বিয়ের দাওয়াতে মেয়েকে নিয়ে গত শনিবার(২২ সেপ্টেম্বর) রাতে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা পঞ্চগড়গামী পঞ্চগড় এক্সপ্রেসে করে বোদা আসছিলেন। ছিনতাইকারী একদল কিশোর বিমানবন্দর স্টেশন থেকে পঞ্চগড় এক্সপ্রেসে ওঠে।বঙ্গবন্ধু সেতু পার হওয়ার পর ওই কিশোর ছিনতাইকারীরা আনসারুল হকের টাকা, স্বর্ণালংকার ও প্রয়োজনীয় মালামালের একটি ব্যাগ ছিনতাই করে জানালা দিয়ে ফেলে দেয়। ওই ব্যাগে ভাতিজির জন্য কেনা ৫ ভরি স্বর্ণের অলঙ্কার, একটি মোবাইল ফোন ও ৪০ হাজার টাকাসহ প্রয়োজনীয় মালামাল ছিল। তাদের ব্যাগটি হাতিয়ে নিয়ে দুই কিশোর পালানোর সময়  যাত্রীরা আটক করে। ছিনতাইকারী চক্রের বাকি সদস্যরা ট্রেন থেকে ঝাঁপিয়ে পড়ে ব্যাগ নিয়ে পালিয়ে যায়। পরে আটক দুই কিশোরকে রেলওয়ে নিরাপত্তা পুলিশের কাছে সোপর্দ করেন যাত্রীরা।
রেলপুলিশের এসআই শেখ তায়েবুল ইসলাম জানান, রেলওয়ে পুলিশের তত্ত্বাবধানে তাদেরকে ওই ট্রেনেই রবিবার সকালে প্রথমে পঞ্চগড় রেলওয়ে স্টেশনে নিয়ে আসা হয়। এরপর বিকালে তাদেরকে পার্বতীপুর রেলওয়ে থানায় হস্তান্তর  করা হয়েছে। সুত্র মতে আটক ওই কিশোর দুইজনকে নিয়ে পুলিশ ঢাকা বিমানবন্দর এলাকায় রুবি নামের ওই নারীর আস্তানার সন্ধ্যান বের করে তাকে আটকের জন্য অভিযান পরিচালনা করবে।
আটক কিশোর দুইজন রেলপুলিশকে জানায় তাদের পেছনে কিছু বড় ভাই আছে। যারা তাদের সব সময় ফলো করে। তারা নিজ নিজ বাড়ি ফিরে যাওয়ার জন্য চেস্টা চালিয়েও বার বার ব্যর্থ হয়। এ জন্য তাদের শারিরিকভাবে নির্যাতন করে রুবি।#

পুরোনো সংবাদ

পঞ্চগড় 4036335546163906798

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

কৃষিকথা

ফেসবুক লাইকপেজ

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item