ঠাকুরগাঁওয়ের সাংবাদিক মিঠুর উপর সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় পুলিশ সুপার এর সাথে প্রেসক্লাবের সাক্ষাৎ

আব্দুল আউয়াল ঠাকুরগাঁও জেলা প্রতিনিধিঃ
   

ঠাকুরগাঁও প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক লুৎফর রহমান মিঠু সহ দুই জনের উপর সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় ঠাকুরগাঁও পুলিশ সুপার মহা মনিরুজ্জামান এর সাথে বুধবার দুপুরে সাক্ষাত করেন ঠাকুরগাঁও প্রেসক্লাবের কার্যনির্বাহী কমিটির বিভিন্ন নেতৃবৃন্দ।

উল্লেখ্য-সন্ত্রাসীর ধারালো অস্ত্রের আঘাতে ঠাকুরগাঁও প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক লুৎফর রহমান মিঠু ও তার বন্ধু সাদেকুল ইসলাম সাদেক (৪২) কে কুপিয়ে যখমের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় আবু সাঈদ বাপ্পি নামে একজনকে আটক করেছেন পুলিশ

রবিবার (১৮ আগষ্ট) পৌনে ৩টায় বাজারপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন সাংবাদিক লুৎফর রহমান মিঠু বলেন, দুপুরে কাজ শেষ করে মোটরসাইকেলে করে বন্ধু সাদেকুল ইসলামকে নিয়ে বাড়িতে ফিরছিলাম। এসময় বাড়ির দরজার সামনে আগে থেকে ওৎ পেতে থাকা বখাটে যুবক আবু সাঈদ বাপ্পি আকষ্মিকভাবে ধারালো চাপাতি নিয়ে আমার উপর হামলা চালায়। তাকে প্রতিরোধ করতে গেলে সে আমার কপালে ধারালো ছোরা দিয়ে কুপিয়ে যখম করে। এসময় বন্ধু সাদেক বাঁধা দিলে তাকেও কুপিয়ে জখম করে বখাটে বাপ্পি। পরে স্থানীয় লোকজন সাংবাদিক মিঠু ও তার বন্ধু সাদেককে উদ্ধার করে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

হাসপাতালের চিকিৎসক মো: শিহাব বলেন, আহত সাংবাদিক মিঠুর কপালের ক্ষতস্থানে ৮টি সেলাই দেয়া হয়েছে ও তার বন্ধু সাদেকের হাতে আঙ্গুলে ৩টি সেলাই দেয়া হয়েছে। আহতদের চিকিৎসা চলছে।

সদর থানার ওসি আশিকুর রহমান বলেন, ঘটনার পর তাৎক্ষণিকভাবে অভিযান চালিয়ে বখাটে আবু সাঈদ বাপ্পিকে আটক করা হয়েছে।

উক্ত সাক্ষাৎকারে ঠাকুরগাঁও প্রেস ক্লাবের সকল নেতৃবৃন্দ সম্মিলিতভাবে এ ঘটনার সাথে জড়িত সকল অপরাধীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান। এসময় ঠাকুরগাঁও প্রেসক্লাবের সভাপতি মনসুর আলী, সহ-সভাপতি জাকির মোস্তাফিজুর মিলু, সহ ক্লাবের অন্যান্য নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

পুরোনো সংবাদ

ঠাকুরগাঁও 1559638022962895240

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

শিল্প-সাহিত্য

ফেসবুক লাইকপেজ

তারিখ অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item