জোড়াবাড়ীতে পূর্ব শত্রুতার জেরধরে মহিলাসহ ৪জনকে পিটিয়ে জখম।

আনিছুর রহমান মানিক, নিজস্ব প্রতিবেদক, নীলফামারী>>
নীলফামারী ডোমার জোড়াবাড়ীতে পূর্ব শত্রুতার জেরধরে মহিলাসহ ৪জনকে পিটিয়ে গুরুত্বর জখম করেছে এক সাবেক সেনা সদস্য।
ঘটনাটি ঘটেছে, উপজেলার জোড়াবাড়ী ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ড বিএসসি পাড়া গ্রামে। সরেজমিনে জানা যায়, উক্ত গ্রামের মৃত ফজল উদ্দিন (আবুল দাড়িয়া) র ছেলে সাবেক সেনা সদস্য  জাকারিয়া আর্মির সাথে একই গ্রামের মৃত ইব্রাহিম আলী বাচ্চাউয়ের ছেলে শুকুর আলী ও বাবলুর পরিবারের সাথে দীর্ঘদিন ধরে পারিবারিক বিষয় নিয়ে শত্রুতা চলে আসছে। এরই জেরধরে ঘটনার দিন বৃহস্পতিবার (২৩ মে) শুকুর আলীর স্ত্রী মেরী বেগম ও রতনের স্ত্রী শাপলা বেগম উক্ত গ্রামের রাস্তায় ধান শুকানোর কাজ করছিল। মৃত ফজল উদ্দিন (আবুল দাড়িয়া) র ছেলে সাবেক সেনা সদস্য জাকারিয়া বিকাল ৫টায় ওই রাস্তা দিয়ে যাওয়ার সময় রাস্তায় ধান শুকানো দেখতে পেয়ে ধান গুলো পাশের জমিতে পানিতে ফেলে দেয়। মেরী ও শাপলা এর প্রতিবাদ করতে গেলে মেরী ও শাপলাকে বেধরক মারপিট করে বিবস্ত্র করে শ্লীলতাহানি ঘটায়। তাদের চিৎকারে শাপলার স্বামী রতন ও তার ভাই রিপন এগিয়ে এলে  জাহিদুলের ছেলে মানিক ও জাকারিয়ার স্ত্রী লিপি মিলে শাঠি শোটা ও দা দিয়ে মেরী, শাপলা, রতন ও রিপনকে এলাপাথারী ভাবে মারধর করে। জাকারিয়াদের নির্যাতনের ফলে মেরী, শাপলা, রতন ও রিপন গুরুত্বর অসুস্থ হয়ে পরে। এলাকাবাসী জাকারিয়াদের কবল থেকে তাদের উদ্ধার করে ডোমার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করে। মৃত ইব্রাহিম আলী বাচ্চাউয়ের ছেলে  শুকুর আলী বলেন, এর আগেও পারিবারিক বিষয় নিয়ে আর্মি জাকারিয়া ও তার দলবল মিলে আমাদের মরধর করে এবং আমার ছেলে রতনের স্ত্রী শাপলার পেটে লাথি মেরে সন্তান গর্ভপাত ঘটায়। বিষয়টি স্থানীয় ভাবে মিমাংসা হয়। এরই জের ধরে সামান্য বিষয় নিয়ে আমাদের উপর নির্যাতন চালায় তারা। মৃত কেফার উদ্দিনের ছেলে মিন্টু জানান, জাকারিয়া আর্মি ক্ষমতার দাপট দেখীয়ে এলাকার সহজ সরল অসহায় মানুষের উপর প্রায় সময় শারীরিক ও মানুষিক নির্যাতন চালায়। তার অত্যাচারে আমরা অতিষ্ট হয়ে পড়েছি। কিছু বলতে গেলে আমাদের মামলা মোকদ্দোমার ভয়ভীতি দেখায় তারা। তাদের অত্যাচারের হাত থেকে রেহাই পেতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন ভুক্তভুগী পরিবারগণ।

পুরোনো সংবাদ

নীলফামারী 8494731887145782230

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

শিল্প-সাহিত্য

ফেসবুক লাইকপেজ

তারিখ অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item