কুমিল্লার দুর্ঘটনায় নিহত জলঢাকার ১৩ জনের লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর

মর্তুজা ইসলাম, জলঢাকা প্রতিনিধিঃ শুক্রবার ভোরে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে ইটভাটায় কয়লা বোঝাই ট্রাকচাপায় নিহত ১৩ জনের মরদেহ তাদের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করেন নীলফামারী জেলা প্রশাসক নাজিয়া শিরিন। উপজেলা প্রশাসনের উদ্দ্যোগে শিমুলবাড়ী ইউনিয়নের রাজবাড়ী কর্নময়ী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে শনিবার সকাল ৮টায় স্বজনদের কাছে মৃতদেহ হস্তান্তর করেন জেলা প্রশাসন। এসময় প্রত্যেকের পরিবারকে নগদ ২০ হাজার টাকা, ১টি করে কম্বল ও শুকনো খাবার দেওয়া হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার সুজা উদ দৌলা, জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সহকারী কমিশনার সুভাশিষ চাকমা, নীলফামারী সদর ভাইসচেয়ারম্যান ও নারী ফোরামের সভাপতি আরিফা সুলতানা লাভলী,জলঢাকা থানার অফিসার ইনচার্জ মোস্তাফিজার রহমান বীর মুক্তিযোদ্ধা কান্তি ভুষন রায়, মিরগঞ্জ ইউপি চেয়ারম্যান হুকুম আলী খান, শিমুলবাড়ি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হামিদুল হক, উপজেলা ত্রান অফিসের উপসহকারী প্রকৌশলী হাফিজুর রহমান প্রমুখ।
উল্লেখ্য ট্রাকচাপায় নিহত ১৩ জন শ্রমিক নীলফামারী জেলার জলঢাকা উপজেলার মিরগঞ্জ ইউনিয়নের ৯ জন ও শিমুলবাড়ি ইউনিয়নে ৪ জন।
নিহতরা হলেন- শিমুলবাড়ী ইউনিয়নের আরাজি শিমুলবাড়ী এলাকার অমুল্য চন্দ্র রায়ের ছেলে মনোরঞ্জন রায়, মৃত জগদীশ চন্দ্র রায়ের ছেলে মিনাল চন্দ্র রায়, ধৌল চন্দ্র রায়ের ছেলে কনক চন্দ্র রায় ও রাজবাড়ী এলাকার মৃত, খোকারাম রায়ের ছেলে বিকাশ চন্দ্র রায় এবং মীরগঞ্জ ইউনিয়নের নিজপাড়া গ্রামের সুরেশ চন্দ্র রায়ের ছেলে রঞ্জিত চন্দ্র রায়, মানিক চন্দ্র রায়ের ছেলে তরুণ চন্দ্র রায়, কিশব চন্দ্র রায়ের ছেলে শংকর চন্দ্র রায়, অমল চন্দ্র রায়ের ছেলে দিপু চন্দ্র রায় ও কামাক্ষা রায়ের ছেলে অমিত চন্দ্র রায়, পাঠানপাড়া গ্রামের নুর আলমের ছেলে মোরসালিন হোসেন, ফজলুল করিমের ছেলে মাসুম হোসেন, জাহাঙ্গির আলমের ছেলে সেলিম হোসেন ও রামপ্রাসাদের ছেলে বিপ্লব রায়। লাশবহনকারী কাভার্ড ভ্যান কর্নময়ী স্কুল মাঠে আসার সাথে সাথে বিভিন্ন এলাকার হাজার হাজার নারীপুরুষ একনজর দেখার জন্য  সেখানে জড়ো হয়।

পুরোনো সংবাদ

নীলফামারী 7291447280414805421

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

কৃষিকথা

ফেসবুক লাইকপেজ

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item