ইবি’র দুই কর্মকর্তাকে মুচলেকার শর্তে মুক্তি

হুমায়ুন কবীর জীবন,ইবি প্রতিনিধি

কর্মকর্তাদের উপর হামলা ও অফিস ভাংচুরের অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই কর্মকর্তাকে মুচলেকা, তিরস্কার ও বদলীর শর্তে মুক্তি দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট। রবিবার রাতে ভিসির বাংলোয় অনুষ্ঠিত জরুরী সিন্ডিকেটে এ সিদ্ধান্ত দেওয়া হয়।

রেজিস্ট্রার অফিস সূত্রে জানা যায়, ভিসি প্রফেসর ড. মো. হারুন-উর-রশিদ আসকারীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত জরুরী সিন্ডিকেটে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন প্রো-ভিসি প্রফেসর ড. মো. শাহিনুর রহমান, ট্রেজারার প্রফেসর ড. মো. সেলিম তোহা প্রমূখ।

মিটিং-এ কর্মকর্তাদের উপর হামলা ও অফিস ভাংচুরের ঘটনায় গঠিত তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন পর্যবেক্ষণ, অভিযুক্তদের অভিমত বিশ্লেষণ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে ঘটনার সাথে সংশ্লিষ্ট থাকায় প্রো-ভিসি অফিসের সহকারী রেজিস্ট্রার মো. আব্দুল হান্নান ও ট্রেজারার অফিসের সহাকারী রেজিস্ট্রার মো. আলমগীর হোসেন খানকে শাস্তি স্বরূপ মুচলেকা, তিরস্কার ও বদলীর সিদ্ধান্ত নিয়েছে জরুরী সিন্ডিকেট।

এ ব্যাপারে ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার এম এম আব্দুল লতিফ বলেন, তদন্ত কমিটি প্রদত্ত রিপোর্ট অনুসারে ঘটনার সাথে ওই দুই কর্মকর্তার সংশ্লিষ্টতা থাকায় তাদের বিরুদ্ধে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে সিন্ডিকেট।

উল্লেখ্য, চলতি বছরের ৪ মে বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকর্তাদের উপর হামলা ও অফিস ভাংচুর করেছিল ওই দুই কর্মকর্তা। এঘটনায় ৫ মে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ তাদেরকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করে এবং ঘটনা তদন্তে প্রফেসর ড. রুহুল কুদ্দুস মো. সালেহকে আহবায়ক করে ৫সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করে।

পুরোনো সংবাদ

শিক্ষা-শিক্ষাঙ্গন 251508893865000870

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

কৃষিকথা

ফেসবুক লাইকপেজ

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item