হেরে গেলো বাংলাদেশ

ডেস্ক:
সুপার টেন পর্বে নিজেদের প্রথম ম্যাচে  পাকিস্তানের বিপক্ষে হার দেখলো টাইগাররা। তবে টাইগারভক্তদের সান্ত্বনাটা সাকিব আল হাসানের ব্যাটে। ব্যক্তিগত ৫০ রানে অপরাজিত থাকলেন বাংলাদেশের বিশ্বসেরা এ অলরাউন্ডার। এতে বিরল এক রেকের্ডও নাম উঠলো সাকিব আল হাসানের। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে ১০০০ রান পূর্ণ হলো সাকিব আল হাসানের। সংক্ষিপ্ত ঘরানার ক্রিকেটে বল হাতে সাকিবরে শিকার ৬১ উইকেট। আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে  ব্যাটে-বলে ১০০০ রান ও ৫০ উইকেটের কৃতিত্ব দেখানো মাত্র দ্বিতীয় খেলোয়াড় তিনি। এমন রেকর্ড রয়েছে আর কেবল পাকিস্তানি অলরাউন্ডার শহীদ আফ্রিদির। ইডেন গার্ডেন মাঠে শেষ পর্যন্ত ১৪৬/৬ সংগ্রহ নিয়ে থামলো বাংলাদেশের ইনিংস। টি-টোয়েন্টিতে সাকিব অর্ধশতকের দেখা পেলেন ১৪ ম্যাচ পর । তার সর্বশেষ অর্ধশতকটিও আসে পাকিস্তানের বিপক্ষেই। গত এপ্রিলে ঢাকায় পাকিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশের জয়ে হার না মানা ৫৭ রানের ইনিংস খেলেন সাকিব। ৫.৪ ওভার শেষে ৪৪/১ সংগ্রহ নিয়ে ক্রিজে ব্যাট হাতে দাপট ধরে রেখেছিলেন তামিম ইকবাল ও সাব্বির রহমান । তবে পরে অল্পতে খেই হারালেন টাইগাররা। পরের ২৭ রানে শীর্ষ তিন ব্যাটসম্যান সাব্বির, তামিম ও মাহমুদুল্লাহ ফিরে যান সাজঘরে। ১৩ ওভার শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৮৭/৪। আর ম্যাচ থেকে ছিটকে যায় বাংলাদেশ। ১৮ ওভার শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ ১২৩/৬।
পাকিস্তানের বিপক্ষে কলকাতায় জয় পেতে হলে ব্যাট হাতে রেকর্ড গড়তে হতো মাশরাফিবাহিনীর। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে দলীয় ২০০ রানের নজির নেই বাংলাদেশের। আর সবচেয়ে রান তাড়া করে বাংলাদেশের জয়ের রেকর্ডটি ১৬৬/৬। গেল জানুয়ারিতে খুলনায় জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে এ রেকর্ড গড়ে বাংলাদেশ। আর বিশ্বকাপে পাকিস্তানের বিপক্ষে বড় টার্গেটের পেছনে ইনিংসের মাত্র দ্বিতীয় বলেই ধাক্কা খায় বাংলাদেশ। মোহাম্মদ আমিরের ডেলিভারিতে বোল্ড আউট হয়ে সাজঘরে ফেরেন ওপেনার সৌম্য সরকার। দ্বিতীয় উইকেটে তামিম-সাব্বির গড়েন ৪৩ রানের জুটি। কিন্তু ব্যক্তিগত ২৫ রানে শহিদ আফ্রিদির ডেলিভারিতে বোল্ডআউট হয়ে যান সাব্বির। ৬ ওভার শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৫৪/২।
টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে নিজেদের সর্বোচ্চ রানের ইনিংস  গড়লো পাকিস্তান। বাংলাদেশের বিপক্ষে ২০১/৫ সংগ্রহ নিয়ে ইনিংস শেষ করলো তারা। টি-টোয়েন্টি ইতিহাসে পাকিস্তান ২০০ রানের ইনিংস দেখালো মাত্রই দ্বিতীয়বার। পাকিস্তানের এমন আগের ঘটনাটিও বাংলাদেশের বিপক্ষে।  ২০০৮ সালে করাচিতে বাংলাদেশের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টিতে স্বাগতিকরা গড়ে তাদের দলীয় সর্বোচ্চ ২০৩ রানের রেকর্ডটি। বুধবার কলকাতায় সর্বোচ্চ ৬৪ রান করেন মোহাম্মদ হাফিজ। সীমানা দড়ির কাছে হাফিজের দেয়া অসাধারণ ক্যাচ লুফে  নেন সৌম্য সরকার। অধিনায়ক শহীদ আফ্রিদি করেন ১৯ বলে ৪৯ রান। এর আগে শেহজাদ-হাফিজের ৯৮ রানের জুটি ভাঙেন সাব্বির রহমান। ব্যক্তিগত ৫২ রানে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন পাক ওপেনার আহমেদ শেহজাদ। ৩৯ বলের ইনিংসে শেহজাদ হাঁকান ৮টি বাউন্ডারি। ১৪ ওভার শেষে পাকিস্তানের সংগ্রহ দাঁড়ায় ১২১/২।
টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে মুখোমুখি বাংলাদেশ-পাকিস্তান। কলকাতার ইডেন গার্ডেনসে টস জিতে আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে পাকিস্তান। বড় সংগ্রহরে পথে তারা। ১০ ওভার শেষে পাকিস্তানের সংগ্রহ ১ উইকেটে ৯০ রান। আহমেদ শেহজাদ ৩৮ ও মোহাম্মদ হাফিজ ৩০ রানে অপরাজিত। এর আগে
প্রথম দুই ওভারেই বিনা উইকেটে ২৫ রান তুলে ফেলে পাকিস্তান। তবে দলীয় তৃতীয় ওভারে বল হাতে নিয়ে তৃতীয় বলে শারজিল খানকে বোল্ড ফেরান স্পিনার আরাফাত সানি। শারজিল ১০ বলে ১৮ রান করেন।
বাংলাদেশ দলে আজও নেই মুস্তাফিজুর রহমান। ইনজুরি থেকে পুরোপুরি সেরে না ওঠায় তাকে দলে রাখা হয়নি। তবে সম্প্রতি বোলিং অ্যাকশন নিয়ে সন্দেহ ওঠা তাসকিন আহমেদ ও আরাফাত সানি দুইজনই আছেন দলে। এছাড়া নাসির হোসেন দলে জায়গা না পেলেও মোহাম্মদ মিথুন দলে আছেন। পাকিস্তানের বিপক্ষে সর্বশেষ ৫ ম্যাচেই জয় বাংলাদেশের জয়। গত বছর ওয়ানডে সিরিজ জয়ের পর পাকিস্তান একমাত্র টি-টোয়েন্টিতেও হারায় বাংলাদেশ। আর সম্প্রতি এশিয়া কাপে পাকিস্তানকে বিদায় করে ফাইনালে খেলে বাংলাদেশ।

বাংলাদেশ দল
তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, সাব্বির রহমান, মাহমুদুল্লাহ, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম, মাশরাফি বিন মুর্তজা, মোহাম্মদ মিথুন, আল-আমিন হোসেন, আরাফাত সানি ও তাসকিন আহমেদ।

পুরোনো সংবাদ

প্রধান খবর 1453325957928839479

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

কৃষিকথা

ফেসবুক লাইকপেজ

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item