ডোমারে ব্র্যাক ও সাংবাদিকের হস্তক্ষেপে বাল্য বিয়ে বন্ধ

আনিছুর রহমান মানিক, ডোমার (নীলফামারী) প্রতিনিধি>>
আবারো বই খাতা হাতে নিয়ে স্কুলে যাওয়ার স্বপ্ন সত্যি হলো মেরীনার। ডোমার উপজেলার ৪নং জোড়াগাড়ী ইউনিয়নের বেতগাড়া দুলাল মেম্বার পাড়া গ্রামের মহিদুল হকের কন্যা মাহিগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের  ৮ম শ্রেনীর ছাত্রী মেরীনা আক্তার (১৪) ছোট বেলা থেকে হাজারো স্বপ্ন হৃদয়ে লালন করতো। লেখা পড়া শিখে নিজের পায়ে দাঁড়াবে।
দেশ ও জাতীর কল্যানে উৎস্বর্গ করবে নিজেকে।  কিন্তু কিশোরীর বয়স না পেরোতেই বিয়ের দিন তারিখ ঠিকঠাক, বর কনে বেশে বসবে বিয়ের পিরিতে রেজিষ্ট্রি হবে ২৮ জুলাই রাতে। এলাকার মধ্য পাড়া গ্রামের মনির উদ্দিনের পুত্র জাহাঙ্গীর আলমের সাথে বিয়ের কথা ছিল। কিন্তু বাঁধসাধে নিয়তি। ঠিক সেই সময় বেকে বসলেন এলাকাবাসী। সংবাদ দেয় ব্র্যাক মানবাধিকার ও আইন সহায়তা কর্মসূচির অর্গানাই(লিগ্যাল এইড)কাজুলী আক্তারকে। তিনি তাৎক্ষনিক ভাবে সাংবাদিক আনিছুর রহমান মানিককে সাথে নিয়ে মেরীনার  পরিবারের লোকদের বুঝিয়ে বিয়ে বন্ধের চেষ্টা চলায়। এতে তারা কর্ণপাত না করায় শেষে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ শফিউর রহমানকে বিষয়টি জানালে, তিনি  সংশ্লি¬ষ্ট ইউপি সদস্য জাহেরুল ইসলাম ও চেয়ারম্যান মনোয়ার হোসেনকে বিয়ে বন্ধের নির্দেশ দেয়। এবং তারা ভাবে গ্রাম পুলিশ পাঠিয়ে বিয়ে বন্ধ করে দেয়। ব্র্যাক মানবাধিকার ও আইন সহায়তায় বাল্য বিয়ে বন্ধ হওয়ায় নতুন করে স্কুুল জীবন ফিরে পাওয়ায় অত্যান্ত খুশি মেরীনাা। এতে করে ব্র্যাক কর্তৃপক্ষকে  সাধুবাদ জানিয়েছে এলাকার সচেতন মহল। 

পুরোনো সংবাদ

নীলফামারী 4042671274692661151

অনুসরণ করুন

সর্বশেষ সংবাদ

কৃষিকথা

ফেসবুক লাইকপেজ

আপনি যা খুঁজছেন

গুগলে খুঁজুন

আর্কাইভ থেকে খুঁজুন

ক্যাটাগরি অনুযায়ী খুঁজুন

অবলোকন চ্যানেল

item